অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ২০২৪: online income mobile diye 2024

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে

Spread the love

অনলাইন ইনকাম

মোবাইল দিয়ে কিভাবে করা যায়? প্রিয় পাঠক কেমন আছেন নিশ্চয়ই আশা করি ভাল আছেন আমি তোমাদের দোয়ায় খুবই ভালো আছি আমি তোমাদের মাঝে যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি আশা করি এটি তোমাদের খুবই ভালো লাগবে আজকের আলোচনার মূল বিষয়টি হচ্ছে অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে এই আর্টিকেলটি যদি সম্পূর্ণভাবে লক্ষ্য করেন তাহলে জেনে নিতে পারবেন যে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম কিভাবে করবেন? বিস্তারিত জানার জন্য সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি দেখুন।

Quick Navigation hide

মোবাইল দিয়ে টাকা আয়?

আপনি যদি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে চান তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে যাচ্ছে কারণ আমি আপনাদেরকে দেখাবো কিভাবে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করা যায়?

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ২০২৪

বর্তমান পরিস্থিতি আপনারা নিশ্চয়ই জানেন যে খুবই খারাপ একটি অবস্থা যাচ্ছে বাংলাদেশ সহ সারা পৃথিবীতে এই সময়ে চাকরি পাওয়া যেমন কষ্ট হয়ে গেছে!

ঠিক তেমনি আমরা যারা নিম্ন পরিবারের সন্তান রয়েছে তাদের জন্য টাকা উপার্জনের মাধ্যম একদমই হারিয়ে গেছে।

তাই আপনারা যারা অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে চান অবশ্যই আমি যে বিষয়গুলো শেয়ার করব আশা করি এগুলি যদি আপনি মনোযোগ সহকারে লক্ষ্য করেন।

তাহলে খুব সহজেই আপনি ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন?

কিভাবে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করা যায়?

আপনি যদি অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে চান মোবাইলের মাধ্যমে তাহলে অবশ্যই আপনার যা যা করণীয় সেটি আমি এখন লিস্ট করে যাব যদি আপনার এই গুলি থাকে তাহলে আপনি আমার দেওয়া টিপস ফলো ফোনে করতে পারেন।

অনলাইন থেকে ইনকাম করতে কি কি লাগে?

  • ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকার বাজেটের যে কোন android mobile এর প্রয়োজন হবে।
  • আপনি যে জায়গায় থাকেন সেখানে ভালো ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে কিংবা ওয়াইফাই থাকতে হবে।
  • আপনাকে অবশ্যই ধৈর্যশীল হতে হবে।
  • অনলাইনে কাজ করার মন-মানসিকতা থাকতে হবে।

মোবাইল দিয়ে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়?

এখন আমি আপনাকে আমাদের মূল আলোচনায় নিয়ে যাচ্ছি অবশ্যই এখন আপনাকে এই বিষয়গুলি মনোযোগ সহকারে দেখতে হবে।

অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করার জন্য আমি আপনাকে ৭ টি টিপস শেয়ার করব!

  1. ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম!
  2. ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম!
  3. অনলাইনে জব করে টাকা ইনকাম!
  4. সিপিএ মার্কেটিং করে আয়!
  5. এফিলিয়ে মার্কেটিং করে টাকা আয়!
  6. ওয়েবসাইট তৈরি করে টাকা আয়!
  7. অ্যাপ তৈরি করে টাকা আয়!

এখন আমি আপনাদেরকে জানাবো সাতটি ক্যাটাগরির কথা বলেছি এখান থেকে এখন বিস্তারিত আমরা আলোচনা শুনবো এবং দেখব।

মোবাইল ফোন দিয়ে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়?

মোবাইল ফোন দিয়ে কিভাবে আপনি facebook এর মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারেন আমরা এখন এই বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব চলুন জেনে নেওয়া যাক!

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়?

আপনি যদি ফেসবুকের মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে চান তাহলে আমি এখন আপনাদের মাঝে যে বিষয়গুলো উল্লেখ করবো এবং তোমাদের শেয়ার করব অবশ্যই এগুলো মনোযোগ সহকারে দেখতে হবে।

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করার উপায়?

প্রথমত আপনার একটি ফেসবুক আইডি থাকতে হবে এবং আপনাকে একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হবে কিভাবে ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হয় এখানে ক্লিক করে তা জেনে নিতে পারেন।

কিভাবে ফেসবুকে প্রতিদিন 500 আয় করা যায়?

এরপর নিয়মিত আপনাকে ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করতে হবে যখন আপনার ফেসবুক পেইজে ভিডিও আপলোড করবেন তখন মাথায় রাখবেন কোন জায়গা থেকে ভিডিও গুলো কপি করে ব্যবহার করবেন না সরাসরি আপনি নিজেই ভিডিও কন্টেন্ট তৈরি করবেন।

ফেসবুক মনিটাইজেশন রিকোয়ারমেন্ট

যখন আপনি আপনার পেজে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করবেন তখন আপনার ফেসবুক পেজ মনিটাইজ এর জন্য আবেদন করতে হবে ফেসবুক বেশ মনিটাইজেশন শর্ত হচ্ছে (দশ হাজার ফেসবুক পেজ ফলোয়ার এবং ৬০ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম) এটি পূরণ করার পর আপনি ফেসবুক পেজ মনিটাইজ এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

ফেসবুক থেকে কত টাকা আয় করা যায়?

যখন আপনার ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন হয়ে যাবে তখন ফেসবুক পেজের ভিডিওগুলোতে বিজ্ঞাপন সেটআপ করতে হবে এরপর আপনি ফেসবুক পেজ থেকে প্রতি মাসে ১০ হাজার টাকা থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

Youtube থেকে আয় করার উপায়?

এখন আমি আপনাদেরকে জানাতে চাচ্ছি যে আপনারা যারা ইউটিউব এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে চান তারা কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবে বিস্তারিত বিষয়গুলো জানার জন্য মনোযোগ সহকারে লক্ষ্য করুন।

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে

ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার উপায়?

আপনি যদি ইউটিউব একাউন্ট থেকে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে আপনাকে নতুন ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে হবে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে জানতে এখানে ক্লিক করুন।

ইউটিউব থেকে আয় করার সহজ উপায়?

ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার পর আপনাকে ইউটিউব চ্যানেল সেটিং করতে হবে ইউটিউব চ্যানেল কাস্টমাইজ করে প্রতিদিন নতুন নতুন ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করতে হবে।

ইউটিউবে যখন আপনি ভিডিওগুলো আপলোড করবেন তখন আপনি কোন জায়গা থেকে কপি করবেন না আপনি নিজেই ইউটিউব এর জন্য কন্টাক্ট তৈরি করা সেটি আপলোড করবেন।

ইউটিউব মনিটাইজেশন রিকোয়ারমেন্ট

আপনার ইউটিউব চ্যানেল যখন মনিটাইজ এর জন্য কমপ্লিট হয়ে যাবে তখন আপনাকে এক হাজার সাবস্ক্রাইবার এবং চার হাজার ঘন্টার ওয়াচ টাইম পূরণ করতে হবে ইউটিউব মনিটাইজেশন শর্ত পূরণ করতে হবে।

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায়?

যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন হয়ে যাবে তখন youtube এর ভিডিও গুলোতে বিজ্ঞাপন সেটআপ করতে হবে।

যখন আপনার ইউটিউবের ভিডিও গুলো মানুষ দেখবে তখন বিজ্ঞাপন থেকে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

অনলাইন টাইপিং জব বাংলাদেশ

আপনি যদি অনলাইনে পার্ট টাইম জব করে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে নিচের বিস্তারিত বিষয়গুলো দেখুন।

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে

অনলাইন টাইপিং জব ডেলি পেমেন্ট

আপনি যদি বাংলা আর্টিকেল লিখতে পারেন তাহলে বাংলাদেশ মধ্যে বিভিন্ন ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে আপনি আর্টিকেল লিখে দৈনিক পেমেন্ট নিতে পারবেন বিকাশ কিংবা নগদ অ্যাকাউন্ট এ।

অনলাইন বাংলা টাইপিং জব

আপনি যদি বাংলা টাইপিং এর মধ্যে এক্সপার্ট হয়ে থাকেন তাহলে আপনি যদি অনলাইনে জব করতে চান তাহলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

কারণ আমরা আর্টিকেল রাইটিং এর জন্য ভালো কিছু লোক খুজেছি যদি আপনি ভালো রাইটিং করতে পারেন তাহলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের কন্টাক নামের যে পেজটি রয়েছে এখান থেকে আমাদের বিস্তারিত তথ্য দেওয়া হয়েছে খুব সহজেই যোগাযোগ করে আমাদের থেকে ইনকাম করতে পারবেন দৈনিক।

সিপিএ মার্কেটিং করে আয়

আপনি যদি মোবাইল দিয়ে সিপিএ মার্কেটিং করতে চান কিংবা সিপিএ মার্কেটিং কিভাবে করতে হয় এই বিষয়টি জানতে চান তাহলে সিপিএম মার্কেটিং কোর্স আমাদের ওয়েবসাইট এর মধ্যে রয়েছে আপনি আশা করি যদি ভালোভাবে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে থাকেন তাহলে খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করুন?

কিভাবে এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করবেন এবং এর মাধ্যমে কিভাবে টাকা ইনকাম করতে হয় এই বিস্তারিত বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে আর্টিকেল রয়েছে আপনি যদি মার্কেটিং করতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইট ভালোভাবে দেখুন।

কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করে টাকা আয় করা যায়?

আপনি যদি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই একটি ব্লগার এবং ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে যদি আপনি গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে চান।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে যদি ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে এখানে আপনাকে ইনভেস্ট করতে হবে কারণ আপনার যে আর্টিকেলগুলো রয়েছে এবং ওয়েবসাইট এর মধ্যে যে ফাইল গুলি রাখার জন্য হোস্টিং কিনতে হবে।

ব্লগার দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরী কর্তে গেলে আপনার কোন রকম টাকা খরচ হবে না কারণ ফ্রিতে ব্লগার ওয়েবসাইট দিয়ে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন শুধুমাত্র একটি ব্লগ স্পট ডট কম এটি google এর পারসোনাল প্ল্যাটফর্ম তাই এখান থেকে আপনি বিনামূল্য ওয়েবসাইট তৈরি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কিভাবে অ্যাপস তৈরি করে টাকা ইনকাম করবেন?

আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস তৈরি করে টাকা আয় করতে চান তাহলে আপনাকে অ্যান্ড্রয়েড স্টুডিও কিংবা অনলাইনে এর মধ্যে অন্যান্য যে প্ল্যাটফর্ম রয়েছে এগুলির মাধ্যমে একটি সফটওয়্যার তৈরি করতে হবে!

এরপর আপনি গুগল এডমোব এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবে।

সরকার অনুমোদিত অনলাইন ইনকাম সাইট

এখন আমি আপনাদের মাঝে এমন একটি ওয়েবসাইট সম্পর্কে আলোচনা করব যেখান থেকে পৃথিবীর সব জায়গা থেকে এবং আমাদের বাংলাদেশ থেকেও মোটামুটি লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করে যাচ্ছে কিভাবে আপনি এই মানি মেকিং ওয়েবসাইট ব্যবহার করে হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারেন এখন সেই প্রসেসটি দেখিয়ে দেবো।

১. সর্বপ্রথম একটি ব্লগার ডট কম থেকে ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে হবে।

২. এরপর আপনি যে বিষয়টি নিয়ে ভালোভাবেই জানেন সেই বিষয়টি নিয়ে লেখালেখি শুরু করেন অবশ্যই আপনি যে আর্টিকেলটি লিখবেন এটি প্রতিটি আর্টিকেল এর ওয়ার্ড যেন এক হাজার থেকে ২০০০ এর মধ্যে হয়ে থাকে এভাবে করে ২০/২৫ টি আর্টিকেল পাবলিশ করুন।

৩. এরপর আপনাকে গুগল সার্চ কনসোল এবং গুগল এনালাইটিক্স ইত্যাদি এর মধ্যে আপনার ওয়েবসাইটটি যোগ করতে হবে।

৪. এরপর আপনাকে একটি নতুন গুগল এডসেন্স একাউন্ট তৈরি করতে হবে প্রথমে (google adsense official website) এর মধ্যে প্রবেশ করে সাইন আপ বাটনের ক্লিক করে আপনার ওয়েবসাইটের ইউআরএল দিয়ে কন্টিনিউ বাটনে ক্লিক করেন পেমেন্ট অপশন এ গিয়ে আপনার সকল ইনফরমেশন গুলো দিয়ে আপনার ওয়েবসাইট এডসেন্স এর জন্য আবেদন করুন।

৫. এরপর আপনার ব্লগার ওয়েবসাইট গুগল এডসেন্স প্রোগ্রাম পলিসি যদি ঠিক থাকে তাহলে ইন্সট্যান্ট মনিটাইজ করিয়ে দিবে এরপর আপনার ওয়েবসাইটের মধ্যে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন সেট আপ করুন।

৬. এরপর আপনি যখন নিয়মিত কাজ করবেন তখন আপনার ওয়েবসাইটের মধ্যে নিয়মিত ভিজিটর আসবে এবং google এর বিজ্ঞাপন এর মাধ্যমে আপনার google এডসেন্স একাউন্ট এর মধ্যে ডলার যোগ হবে।

৭. যখন আপনার একাউন্টের মধ্যে ১০ ডলার হয়ে যাবে তখন আপনি এডসেন্স একাউন্ট এর মধ্যে যে এড্রেস দিয়েছেন ওখানে একটি পিন লেটার পাঠিয়ে দেওয়া হবে এবং ওখানে ছয় সংখ্যার কোড দিবে ওটি দিয়ে আপনার একাউন্ট ভেরিফাই করিয়ে নিবেন।

৮. এরপর আপনাকে একটি গুগল এডসেন্স একাউন্ট এর মধ্যে ব্যাংক একাউন্ট যোগ করতে হবে।

৯. এরপরে আপনার একাউন্ট এর মধ্যে যখন ১০০ ডলার হবে তখন আপনার ব্যাংক একাউন্টের মধ্যে প্রতি মাসের ২১ তারিখ ডলার যোগ করে দিবে এবং আপনার ব্যাংক একাউন্ট এর মধ্যে টাকা এড হবে পাঁচ দিন এর মত সময় লাগবে এক্ষেত্রে আপনি যদি ইসলামী ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেন তাহলে আরো কম সময়ে আপনি টাকা পেয়ে যাবেন।

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম

অনলাইন থেকে ইনকাম করার উপায় সম্পর্কে আমি যতটুকু জানি তা আপনাদের মাঝে শেয়ার করেছি এ ছাড়া আপনি আরো যদি নিত্য নতুন (মোবাইল দিয়ে আয়) সম্পর্কে জানতে চান অবশ্যই কমেন্ট বক্সে দেখে জানাবেন।

মোবাইল ফোন দিয়ে টাকা ইনকাম

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে কিভাবে করবেন আপনাদেরকে আরো একটি কথা বলে রাখতে চাই সেটি হচ্ছে অনলাইন থেকে মোবাইলের রাতারাতি টাকা ইনকাম করে কোটিপতি হতে পারবেন না তবে এখানে অনেক ধৈর্যের ব্যাপার রয়েছে আপনি যদি ধৈর্যশীল হয়ে থাকেন তবেই আপনার জন্য অনলাইন ইনকাম কোর্সটি।

আজকে আপনাকে আরো কয়েকটি অনলাইন ইনকাম অ্যাপস এবং অনলাইন ইনকাম ওয়েবসাইট সম্পর্কে পরিচয় করিয়ে দেবো এবং যেখান থেকে আপনি একটি ভাল পরিমান আয় করতে পারেন।

Adsterra থেকে ইনকাম করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করে সাইড আপ বাটনে ক্লিক করে পাবলিশারে গিয়ে আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য ইনফরমেশন দিয়ে অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এরপর লিংকটি আপনি বিভিন্ন জায়গায় শেয়ার করে খুব সহজেই আয় করতে পারবেন।

Payoneer referral প্রোগ্রাম থেকে ইনকাম করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে পেওনিয়ার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করে আপনার যাবতীয় ইনফরমেশন গুলো দিয়ে একাউন্ট খুলতে হবে এরপর রেফারেল লিংকটি আপনি যদি বিভিন্নভাবে শেয়ার করে কাউকে অ্যাকাউন্ট খুলে লেনদেন করাতে পারেন তাহলে আপনি ২৫ ডলার করে বোনাস পাবেন প্রতিটি অ্যাকাউন্ট থেকে।

Terabox referral program থেকে উপার্জন করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করে আপনার ইমেইল কিংবা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে সাইনআপ করে একাউন্টে লগইন করে এখানে লিঙ্ক শর্ট করে কিংবা affiliate মার্কেটিং করে আয় করতে পারবেন।

Refer Earn থেকে অনলাইনে ইনকাম করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপসটি ইন্সটল করে নিতে হবে এরপর আপনি সাইন আপ করবেন এবং এখানে আপনি যে রেফার লিংক পাবেন এটি বিভিন্নভাবে শেয়ার করে আপনি যদি অ্যাপসটি ডাউনলোড করাতে পারেন তাহলে এখান থেকেও আপনি ভালো পরিমাণ আয় করতে পারবেন।

Shoppre থেকে ইনকাম করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট কিংবা অ্যাপসটি ডাউনলোড করে একটি একাউন্ট খুলতে হবে এরপর আপনি যে রেফার লিংকটি পাবেন এটি বিভিন্ন জায়গায় শেয়ার করে যদি এপিকে ডাউনলোড করাতে পারেন তাহলে আপনাকে ৫০০ ইন্ডিয়ান রুপি বোনাস দেওয়া হবে।

Western Union এর মাধ্যমে অনলাইনে মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে চান সর্বপ্রথম আপনাকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে এরপর আপনারা যাবতীয় তথ্যগুলো দিয়ে একাউন্টগুলো যে রেফার লিংকটি পাবেন এটি শেয়ার করে যদি কাউকে অ্যাকাউন্ট খুলে লেনদেন করাতে পারেন তাহলে আপনি ২০ ডলার বোনাস পেয়ে যাবেন।

Hostinger রেফারেল প্রোগ্রাম থেকে আপনি যদি আয় করতে চান সেই ক্ষেত্রে হোস্টিংগার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করুন এরপর আপনি রেফারেল প্রোগ্রামে আপনার ইনফরমেশন গুলো দিয়ে জয়েন করেন যদি যারা ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনে তাদেরকে শেয়ার করে একটি প্যাকেজ কিনতে পারেন তাহলে এখান থেকেও আপনি ভালো একটি বোনাস পেতে পারেন।

LinksManagement প্রতিটি রেফার থেকে আপনি ৫০ ডলারের বেশি আয় করতে পারেন তার জন্য আপনাকে ওয়েবসাইট এর মধ্যে প্রবেশ করে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে।

রেফার লিংকে পাবেন এটি বিভিন্নভাবে আপনি শেয়ার করবেন এরপর যদি কেউ অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করে তাহলে আপনি প্রতিটি একাউন্ট থেকে 50 ডলার বা তার বেশি কমিশন পেয়ে যাবেন।

মোবাইল থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়?

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে বাংলাদেশের মধ্যে যারা লক্ষ লক্ষ টাকা ফিন্যান্সিং এর মাধ্যমে তারা একদিনে এই কাজগুলো করতে পারিনি ধীরে ধীরে তাদের এই কাজগুলো করে যেতে হয়েছে তবে আপনাকেও এ ধরনের কাজ গুলো করে আস্তে আস্তে এগিয়ে যেতে হবে।

ফোন দিয়ে অনলাইনে ইনকাম সম্পর্কে এই আর্টিকেলটি যদি আপনার ভালো লাগে এবং আপনি মনে যদি করেন আপনার বন্ধুদের সাহায্য করার তাহলে সোশ্যাল মিডিয়াতে আর্টিকেলটি শেয়ার করুন ধন্যবাদ।

error: Content is protected !!